1. mdjoy.jnu@gmail.com : admin : Shah Zoy
  2. starnt1991@gmail.com : Shawkat :
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০৮:৫৮ পূর্বাহ্ন

জেলায় প্রস্তুত ৫৭৬ আশ্রয়কেন্দ্র

সৈকত
  • আপডেট করা হয়েছে বুধবার, ২৬ মে, ২০২১
  • ১৭ বার পড়া হয়েছে

কক্সবাজার জেলায় ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে ৫৬৭ আশ্রয়কেন্দ্র। পাশাপাশি এতে যুক্ত হবে অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রগুলোও। ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন, কক্সবাজার সিভিল সার্জন, কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সংশ্লিষ্ট আইন-শৃংখলা বাহিনী।

কক্সবাজার আবহাওয়া অফিসের থেকে বলা হয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত প্রবল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আরও উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বর্তমানে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি গতকাল ৩টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৫৫৫ কিঃমিঃ দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ৫২০ কিঃমিঃ দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছে। তাই কক্সবাজারকে ৩নং সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তর আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস আজ বুধবার দুপুরের পর থেকে সন্ধ্যার মধ্যে ভারতের উড়িষ্যা, পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলগুলোতে আঘাত হানতে পারে। ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে ভারি থেকে অতি ভারি বর্ষণ হতে পারে। বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের একাধিক জেলার মধ্যে উপকূলীয় অঞ্চল হওয়ায় কক্সবাজারও রয়েছে ঝুঁকিতে। ইতিমধ্যে গত রোববার থেকে ঝড়ো হাওয়ার প্রভাব লক্ষ্য করা গেছে উপকূলীয় অঞ্চল কক্সবাজারে।

কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ফায়ার ম্যান মোঃ কামরুজ্জামান জানান, গত কয়েকদিন আগে থেকে কক্সবাজারে আমাদের যথেষ্ট প্রস্তুতি রয়েছে। যেকোন ধরণের দূর্যোগ মোকাবেলায় আমরা প্রস্তুত। গত মঙ্গলবার এবং আজ বুধবারের ঘূর্ণিঝড় ইয়াস নিয়ে আমাদের সতর্কতা রয়েছে।

কক্সবাজার সিভিল সার্জন অফিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তা জানান, ঘূর্ণিঝড় ইয়াস নিয়ে ইতিমধ্যে মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। এই টিমটি জেলাব্যাপী করা করবে। জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে দুর্যোগ প্রস্তুতি টিম গঠন করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে কাজ করতে কক্সবাজার সিভিল সার্জন প্রস্তুত রয়েছে।

কক্সবাজার আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছেন, গত কয়েকদিন থেকে ২নং হুশিয়ারী সংকেত দেয়া হলেও বর্তমানে কক্সবাজারে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়।

এদিকে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রস্তুতি সভা করা হয়েছে। প্রস্তুতি সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় জনগণের দৌঁড়গোড়ায় পৌঁছে গিয়ে কাজ করার আহবান জানান জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, পুরো জেলায় ৫৭৬টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এছাড়াও প্রাতিষ্ঠানিক অনেক অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হবে। এসব আশ্রয়কেন্দ্রে কাজ করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে প্রয়োজনীয় স্বেচ্ছাসেবক। এবিষয়ে জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সকল কর্মকর্তাদেরকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় নিজ নিজ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবেলায় মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে বলেও জানান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন